গুগলকে বলা যায় আধুনিক বিশ্বের সবজান্তা ঈশ্বর। আপনার হাতে যদি গুগলের একটা স্মার্টফোন থাকে তাহলে ধরে নিন আপনার ব্যাক্তিগত জীবনের অধিকাংশ ব্যাপারে গুগল খুবই সজাগ। তার কাছে আছে আপনার প্রতিদিন এর প্রায় অধিকাংশ তথ্য। তাহলে তো রাস্তা ঘাটের তথ্য জানা গুগলের কাছে ব্যাপারই না।  তবে জানেন কি?  গুগল আপনার থেকেই কিন্তু রাস্তার ওই ট্রাফিক জ্যামের খবর নিচ্ছে। 
কিভাবে?


Simon Weckert নামে এক জার্মান  হ্যাকার একবার একটি অদ্ভুত কান্ড করেছিলেন। তিনি ৯৯ টি মোবাইলে google map চালু রেখে মোবাইল গুলিকে একটি ছোট চাকা বিশিষ্ট হ্যান্ড ট্রাক এর মধ্যে রেখে বার্লিনের এক ফাঁকা রোডের উপর দিয়ে ধীরে ধীরে চলতে শুরু করলেন।
যার ফলে বার্নিলের ওই রাস্তায় গুগল ম্যাপে  লাল রং দেখাচ্ছিল।
যারা Google MAP ব্যবহার করেন বুঝতেই পারছেন লাল রঙের অর্থ হলো ওই রাস্তায় জ্যাম রয়েছে। অর্থাৎ তিনি গুগল ম্যাপে একটি মিথ্যা জ্যাম তৈরী করতে সক্ষম হয়েছিলেন।
32 বছর বয়সী এই কর্মী ডেটা অপব্যবহারের মাধ্যমে সবাইকে  সতর্ক করে এবং দেখায় যে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা থেকে মুভমেন্ট  মানচিত্রকে অন্ধভাবে বিশ্বাস করা উচিত নয়।


তথ্য সুত্রঃ *http://www.simonweckert.com/arte.html*

এখন কি বুঝতে পারলেন গুগল কীভাবে জানতে পারে

ট্রাফিক জ্যামের কথা? 

গুগল একটি নির্দিষ্ট রাস্তার  সমস্ত মোবাইল ব্যবহারকারীর জিপিএস  দিয়ে তাদের অনুসরণ করে। সেখান থেকে এলগরিদম ব্যবহার করে তাদের গতিবেগ, দূরত্ব এইসব সহজে ক্যালকুলেশন ও সংগ্রহ  করে। যেখানে অনেক ব্যবহারকারী রয়েছে, এবং গাড়ির গতিবেগ কম সেখানে ট্রাফিক জ্যাম দেখায়। অপেক্ষাকৃত বেশী গতিবেগ হলে “হলুদ” লাইন দেখিয়ে কম জ্যাম আছে বোঝানো হয়। এবং যেখানে ব্যবহারকারী বেশি এবং এদের দূরত্ব ও গতি বেগ ধীর তখন “লাল” লাইন দেখিয়ে বেশী জ্যাম আছে বোঝানো হয়।

এছাড়াও একজায়গায় থেকে অন্য জায়গা পৌঁছতে কত সময় লাগবে সেটা জানার জন্য গুগল পুরানো ডাটা সংগ্রহ করে এবং একটি নির্দিষ্ট গড় সময় আমাদের প্রদর্শন করে।

Nirjon Niyaz (Tariq)

Administrator of WHQ Bangla


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *